ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৬ মার্চ ২০২৩

কুবিতে ‘বন্ধু’র রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা এবং সচেতনতা ক্যাম্পেইন

দৈনিক প্রথম বাংলাদেশ
মার্চ ১৬, ২০২৩ ৪:২১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

   
                       

কুবি প্রতিনিধি:

স্বেচ্ছায় রক্তদাতা সংগঠন ‘বন্ধু কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়’ এর উদ্যোগে নবমবারের মতো কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) দুই দিনব্যাপী রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, হেপাটাইটিস-বি ও জরায়ুমুখে ক্যান্সার সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাডমিন্টন কোর্টে এ ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এফ এম আবদুল মঈন। মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা এবং বুধবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত এই ক্যাম্পেইন চলবে।

বন্ধু কর্তৃক ৯ম বারের মতো আয়োজিত এই ক্যাম্পেইনের কার্যক্রমের মধ্যে থাকবে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, হেপাটাইটিস-বি ভ্যাক্সিন প্রদান ও সচেনতা, এবং জরায়ুমুখে ক্যান্সার সম্পর্কে সচেতনতাসহ থাকছে স্বেচ্ছায় রক্তদাতা সংগঠন ‘বন্ধু, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়’ এ কাজ করতে আগ্রহীদের জন্য সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম। এখানে হেপাটাইটিস-বি ভ্যাকসিন ও জরায়ু মুখে ক্যান্সার ভ্যাকসিন স্বল্পমূল্যে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ, শিক্ষকমণ্ডলী, ও কর্মকর্তা-কর্মাচারী যে কেউ নিতে পারবে।

সংগঠনটির সার্বিক কার্যক্রম এবং ক্যাম্পেইন বিষয়ে বন্ধু কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফ বলেন, প্রতিবছর আমরা ১ হাজার এর মতো ব্লাড গ্রুপিং এবং ২০০ এর মতো হেপাটাইটিস বি এর পরীক্ষা করেছি। এবারেও আমরা লক্ষ মাত্রায় পৌঁছাবো আশা করছি। কর্মসূচির মধ্যে হেপাটাইটিস বি এবং জরায়ুমুখে ক্যান্সার ভ্যাক্সিন বিষয়গুলো বাহিরের যেকোন জায়গায় চড়ামূল্যে বহন করতে হয় যেখানে আমরা সল্পমূল্যে সেবাগুলো দিয়ে যাচ্ছি। আমরা ফান্ডিংয়ের অভাবে অরো অনেক কর্মসূচী সংযোজন করতে চাইলেও পারছিনা। প্রশাসন যদি আমাদের সাহায্যের হাতটা বাড়ায় আমরা আমাদের লক্ষে পৌঁছাতে পারবো। আপাতত আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল থেকে কিছু বিষয়ে সাহায্য পেয়ে থাকি এবং নতুন কর্মসূচীগুলোর জন্য আমরা বাহির থেকে মেডিকেল টিম নিয়ে এসেছি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এফ এম আবদুল মঈন বলেন, ‘বিশেষভাবে হেপাটাইটিস বি ও জরায়ুমুখে ক্যান্সার এগুলো খুব মারাত্মক। এই রোগ গুলোর বাহিরে যেরকম সচেতনতা আছে, তা এখানে নেই। মানুষ এগুলোকে স্টিগমা মনে করে। এটাকে স্টিগমা হিসেবে না দেখে তোমরা বরং ভ্যাক্সিনেট করবে, এটাই আশা করছি৷’

এছাড়াও অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, ছাত্র উপদেষ্টা ড. মোহা: হাবিবুর রহমান, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন এন. এম. রবিউল আউয়াল, আইন অনুষদের ডিন শামীমুল ইসলাম, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন, আইন বিভাগের প্রভাষক আবু বকর ছিদ্দিক, ফার্মেসি বিভাগের প্রভাষক বিদ্যুৎ কুমার সরকার এবং ডেপুটি চীফ মেডিকেল অফিসার ড. মাহমুদুল হাসান খানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ।