ঢাকাশনিবার , ৩ ডিসেম্বর ২০২২

নানা আয়োজনে পলাশপুর জোন (৪০ বিজিবি) কর্তৃক শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের ২৫তম বার্ষিকী উদযাপন

মোঃ আরিফুল ইসলাম
ডিসেম্বর ৩, ২০২২ ৪:৫১ অপরাহ্ণ
Link Copied!
   
                       

মোঃ আরিফুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার পলাশপুর জোন (৪০ বিজিবি) কর্তৃক পার্বত্য শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের ২৫তম বার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে। শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর সকালে পলাশপুর জোন, খেদাছড়া ব্যাটালিয়ন (৪০ বিজিবি) কর্তৃক নানা আয়োজনে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের ২৫তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে র‍্যালী শোভাযাত্রা, বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়েছে। পলাশপুর জোন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল সোহেল আহমেদ, পিএসসি, ইঞ্জিনিয়ার্স এর দিক নির্দেশনায় বিজিবি সদস্য এবং স্থানীয় পাহাড়ী ও বাঙ্গালীদের সমন্বয়ে পলাশপুর জোন সদর হতে খেদাছড়া বাজার পর্যন্ত শান্তি ও সম্প্রীতির র‍্যালী শোভাযাত্রা করা হয়। র‍্যালী শেষে ৩০ জন বিজিবি সদস্য এবং ৩০ জন বেসামরিক পাহাড়ী ও বাঙ্গালী সদস্য গুইমারা আর্মি রিজিয়ন কর্তৃক আয়োজিত শান্তি ও সম্প্রীতি র‍্যালীতে অংশগ্রহণের নিমিত্তে খেদাছড়া বাজার হতে যানবাহনযোগে গুইমারা গমন করেন ।

শান্তি, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের লক্ষ্যে পলাশপুর জোন এর ব্যবস্থাপনায় জোন সদরে সুবেদার সামছুল হক, বাস্কেট গ্রাউন্ডে দুই শতাধিক স্থানীয় পাহাড়ী এবং বাঙ্গালী জনসাধারণের মাঝে ফ্রি চিকিৎসা সেবা এবং বিনামূল্যে ঔষধ বিতরণ করা হয়। পলাশপুর জোন (৪০ বিজিবি) এর জোন অধিনায়ক লে: কর্ণেল সোহেল আহমেদ, পিএসসি, ফ্রি চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এ সময় পলাশপুর জোন এর সুবেদার মেজর নুরুল ইসলাম, প্রধান সহকারী মো: জাহিদুল ইসলাম, জোনের বিভিন্ন পদস্থ কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের ২৫তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে জোন সদরের ব্যবস্থাপনায় চিত্তবিনোদন কক্ষে চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়। এদিকে গুইমারা আর্মি রিজিয়নের ব্যবস্থাপনায় গুইমারা হাই স্কুল মাঠে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত আলোচনা সভায় উর্ধ্বতন আলোচকদের পাশাপাশি পলাশপুর জোনের জোন অধিনায়ক লে: কর্ণেল সোহেল আহমেদ, পিএসসি, ইঞ্জিনিয়ার্স পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের ২৫তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন। এ সময় প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যগণ এবং স্থানীয় বেসামরিক পাহাড়ী ও বাঙ্গালী উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও পলাশপুর জোন কর্তৃক গুইমারা আর্মি রিজিয়ন সদরে আয়োজিত শান্তি ও সম্প্রীতি মেলায় বিভিন্ন মানবিক সহায়তা ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের ছবি বোর্ড স্টলে স্থাপন করে ডিজিটাল প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হয়।