ঢাকাবুধবার , ১৪ ডিসেম্বর ২০২২

ভাঙ্গুড়ায় ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

মোঃ মেহেদী হাসান
ডিসেম্বর ১৪, ২০২২ ৫:৩২ অপরাহ্ণ
Link Copied!
   
                       

মোঃ মেহেদী হাসান-ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

মোবাইলে কথা বলতে বলতে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন উর্মি আক্তার (১৫) নামের এক স্কুলছাত্রী। বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে ঈশ্বরদী-ঢাকা রেললাইনের ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের সারুটিয়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত স্কুলছাত্রী উর্মি উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের বেতুয়ান গ্রামের খান জাহান আলীর মেয়ে। তিনি বেতুয়ান বিবি স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিন সকালে প্রাইভেট পড়তে ভাঙ্গুড়া বাজারে যান উর্মি আক্তার। বুধবার দুপুরে প্রাইভেট পড়া শেষে তিনি রেললাইনের পাশের বাগানে বসে মোবাইল ফোনে দীর্ঘক্ষণ ধরে কারো সঙ্গে কথা বলছিলেন। পরে মোবাইলে কথা বলার সময় ট্রেন আসলে তিনি ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দেন। এতে শরীর দ্বিখন্ডিত হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের কয়েকজন বলেন, মেয়েটি রেললাইনে বসে মোবাইলে কথা বলতে বলতে এক পর্যায়ে রাগান্বিত হয়ে দ্রæত ট্রেনের নিচে ঝঁপ দেয়। কোন ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে তার সঙ্গে অভিমান করে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশিদুল ইসলাম বলেন, প্রাইভেট পড়ার কথা বলে সকালে বাড়ি থেকে বের হয়েছিল উর্মি। পারিবারিক মান অভিমান থেকে সে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মরদেহ উদ্ধারের জন্য রেলওয়ে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা ঘটনা তদন্ত করবে। পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে পুলিশ সুপার শাহাব উদ্দিন বলেন, ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার বিষয়টি আমরা জেনেছি। মরদেহ উদ্ধারের জন্য ফোর্স পাঠানো হয়েছে। আত্মহত্যার বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।