ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৫ ডিসেম্বর ২০২২

নওগাঁ প্রতারণা করে টাকা উত্তোলনের অভিযোগে বিকাশের কর্মকর্তাসহ ২ জন গ্রেফতার

Siam Hossen
ডিসেম্বর ১৫, ২০২২ ৮:৪৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!
   
                       

নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ
প্রতারণা করে টাকা উত্তোলনের অভিযোগে বিকাশের কর্মকর্তাসহ ২ জনকে মঙ্গলবার ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী উপজেলার কমলাপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) নওগাঁ। ৩ বছর আগে নওগাঁয় কর্মরত এক বিচারক বিকাশের মাধ্যমে প্রতারণার শিকার হন। ওই ঘটনায় করা মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে পিবিআই নওগাঁ কার্যালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ফরিদপুর জেলা সদরের শর্ট রোড উত্তর কমলাপুর এলাকার বাসিন্দা জুয়েল খান (৩০) ও ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের বাসিন্দা মিল্টন বিশ্বাস। গ্রেপ্তার জুয়েল খান ও ফরিদপুর বিকাশ ডিস্ট্রিবিউশন অফিসে সুপারভাইজার হিসেবে কর্মরত।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০১৯ সালে নওগাঁয় কর্মরত একজন বিচারকের ব্যক্তিগত বিকাশ নম্বর থেকে প্রতারণার মাধ্যমে প্রতারক চক্র দুই দফায় ৭৯ হাজার ৯৮৩ টাকা আত্মসাৎ করে নেয়। এ ঘটনায় ওই বিচারকের অফিস সহকারী বাদী হয়ে ২০২০ সালের ৩ মার্চ নওগাঁ সদর মডেল থানায় দন্ডবিধি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। থানা পুলিশ প্রাথমিক ভাবে মামলাটি তদন্ত করে মামলা মূল রহস্য উদঘাটন করতে ব্যর্থ হয়। পরবর্তীতে উচ্চ আদালত মামলাটির নথি পর্যালোচনা করে অধিকতর তদন্তের জন্য পিবিআই নওগাঁকে নির্দেশ দেন। মামলাটি গ্রহণের পর তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় প্রতারক চক্রের মূল হোতা বিকাশ কর্মকর্তা জুয়েল খানসহ দুইজনকে গ্রেফতার করে পিবিআই পুলিশ।
পিবিআই নওগাঁর পুলিশ সুপার নয়মুল হাসান বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিরা পরস্পর যোগসাজশে বিভিন্ন বিকাশ এজেন্ট পয়েন্ট হতে গ্রাহকদের বিকাশ নম্বর সংগ্রহ করে গ্রাহকদের সাথে কথা বলে কৌশলে পিন নম্বর সংগ্রহ করে নিতেন। পিন নম্বর পাওয়ার পর তারা ওই সব গ্রাহকের বিকাশ অ্যাকাউন্টে থাকা টাকা ক্যাশ আউট করে আত্মসাৎ করে আসছিল। গ্রেফতারের পর তাদের আদালতে নেওয়া হলে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এঘটনার সাথে জড়িত অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

উজ্জ্বল কুমার সরকার

ফোন০১৭২৬-৩৭৬২৮২ তারিখ ১৪/১২/২২
নওগাঁ।