ঢাকামঙ্গলবার , ২০ ডিসেম্বর ২০২২

গঙ্গাচড়ায় ভিজিডি কার্ড দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ – ইউপি সদস্য গ্রফতার

সানজিম মিয়া
ডিসেম্বর ২০, ২০২২ ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!
   
                       

সানজিম মিয়া – গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধিঃ

ভিজিডি কার্ড দেওয়ার কথা বলে রংপুরের গঙ্গাচড়ায় এক নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ উঠছে ইউ’পি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হলে মডেল থানার পুলিশ ইউ’পি সদস্য একরামুল হককে (৩৬) গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড়বিল ইউনিয়নের দক্ষিন পানাপুকুর গ্রামে।
এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সুত্র জানা যায়, ছয় বছর আগে ওই নারীর (৩০) স্বামী মারা যান। তিন সন্তান নিয়ে দিনমজুরী করে ওই নারী জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন।পরিবারের অভাব-অনটনের জন্য ওই নারী বড়বিল ইউনিয়নের ৫ নং ইউ’পি সদস্য একরামুল হকের কাছে একটি ভিজিডি কার্ডের আবেদন করেন। একরামুল হক ভিজিডি কার্ড দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ওই নারীর সাথে কয়েক মাস ধরে মোবাইল ফোনে অশ্লীলভাষায় কথা বলতো। এবং কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। গত রোববার বিকেলে ইউপি সদস্য একরামুল ওই নারীর বাড়িতে গিয়ে তাকে ঘুম অবস্থায় দেখতে পান। সে সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় একরামুল ওই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই নারী বাদী হয়ে গঙ্গাচড়া মডেল থানায় ইউ’পি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মামলা হওয়ার পরই একরামুলকে রাতেই তার বাড়ি থেকে গ্রফতার করে। এ নিয়ে বড়বিল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদ চৌধুরী দ্বীপ জানান ,বিষয়টি আমি শুনছি। গঙ্গাচড়া মডেল থানার ওসি দুলাল হোসেন জানান, ইউপি সদস্য একরামুল হক বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করেছেন, তাকে আদালতের মাধ্যম জেল হাজতে পাঠানা হয়েছে। সেই সাথে ধর্ষণের শিকার নারীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানা হয়েছে।