ঢাকাশুক্রবার , ৩ মে ২০২৪

গোবিন্দগঞ্জে খেলার মাঠে হাট বসানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন

আশরাফুজ্জামান সরকার
মে ৩, ২০২৪ ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!
   
                       

আশরাফুজ্জামান সরকার, গাইবান্ধাঃ-

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে মহিমাগঞ্জ টাউন ক্লাব মাঠে গরু-ছাগলের হাট বসার প্রতিবাদ-প্রতিকার চেয়ে মানবন্ধন করেছে স্থানীয় বর্তমান ও সাবেক খেলোয়াররা। বৃহস্পতিবার (২ মে) দুপুরে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এ কর্মসূচি পালন করেন তারা। এতে বক্তব্য রাখেন, এম এ মতিন মোল্লা, মাহফুজার রহমান পলাশ, আল তালজির ডলার প্রমুখ।

তারা বলেন, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের মহিমাগঞ্জ টাউন ক্লাব মাঠটি একটি ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ। এ মাঠে বিগত ১৯৩২ সালে কলকাতার মোহনবাগান ক্লাবের সঙ্গে অত্র ক্লাবের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় খেলোয়াররা ২০২৩ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় হাইস্কুল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। এই মাঠে খেলাধূলায় অংশগ্রহনকারী খেলোয়াড়দের মধ্যে আজ অনেকে এসপি, কর্ণেল, মেজর, ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার, ব্যাংকার সহ সরকারের অনেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে আসছেন। বর্তমানে জেলার মধ্যে একমাত্র মহিমাগঞ্জ ইউনিয়ন থেকে ৪ জন খেলোয়াড় ঢাকা ক্রিকেট লীগে ও ৩ জন খেলোয়াড় গাইবান্ধা জেলা একাদশের হয়ে খেলছে।

কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় এই যে, প্রায় এক যুগ হলো একটি স্বার্থন্বেষী মহল মাঠটিতে সপ্তাহে দুই দিন গরু ছাগলের হাট ও সপ্তাহের বাকি পাঁচদিন বাঁশ হাট বসিয়ে আসছে। এলাকার কিশোর ও যুবকরা মাঠে খেলতে গেলে হাট দখলদাররা খেলোয়ারদের বাঁধা দেয়। হাটে মালবাহী ট্রাক মাঠে প্রবেশ করার কারণে মাঠের অনেক জায়গায় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। রাতে মাঠটি বিভিন্ন অপকর্ম এবং মাদক সেবীদের আস্তানায় পরিণত হয়েছে। তারা আরো বলেন, এলাকার কিশোর ও যুবকরা খেলার সুযোগ হারিয়ে মোবাইল গেমস্ ও মাদকদ্রব্যসহ বিভিন্ন অসামাজিক কাজে জড়াচ্ছে। তাই এলাকার কিশোর যুবকদের সার্বিক কল্যাণে হাট অন্যত্র স্থানান্তর করে মাঠটি পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে দিতে জেলা প্রশাসকের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।